রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

শিক্ষা উপমন্ত্রীর পরামর্শ নেবে এনটিআরসিএ: দ্রুত ফল চায় প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রিটকারী আড়াই হাজার প্রার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করতে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বাতিল করে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। ফলে আইন অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দিতে আর বাধা নেই বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ)।

দু’-একদিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করতে চায় এনটিআরসিএ। এটি নিয়ে করণীয় ঠিক করতে সোমবার (২৮ জুন) বিকেলে শিক্ষা সচিব মাহবুব হোসেনের সঙ্গে বৈঠক করেন এনটিআরসিএর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এ সময় শিক্ষা সচিব কিছু দিকনির্দেশনা দিয়েছেন।

এনটিআরসিএর এক ঊধ্র্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘সচিব মহোদয় আমাদের প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। এর মধ্যে শিক্ষাউপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের সঙ্গে পরামর্শের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। উপমন্ত্রীর পরামর্শক্রমে ফল প্রকাশ করা হবে।’

আগামীকাল মঙ্গলবার (২৯ জুন) দুপুরের পর ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশের ফল প্রকাশের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানা যাবে বলে জানান তিনি।

সোমবার (২৮ জুন) সকালে এনটিআরসিএ’র বিরুদ্ধে জারি করা আদালত অবমাননার রুল খারিজ করে দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএ’র সচিব ড. এ টি এম. মাহবুব-উল করিম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘বহুল কাঙ্ক্ষিত এ রায় আমাদের পক্ষে এসেছে। আমাদের টেলিটকের সঙ্গে কথা বলতে হবে। আশা করছি, দু’-একদিনের মধ্যেই ফল প্রকাশ করতে পারবো।’

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় ৩য় তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি প্রত্যাশী শিক্ষক নিয়োগ ফোরামের সভাপতি শান্ত আহমেদ বলেন, ‘অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে আপিল ডিভিশনের রায় নিজেদের পক্ষে আনার জন্য সাধারণ নিবন্ধনধারীদের পক্ষ থেকে এনটিআরসিএকে ধন্যবাদ। আমরা চাই গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশের ক্ষেত্রে শিক্ষামন্ত্রণালয় ও এনটিআরসিএ আর সময়ক্ষেপণ না করুক। সাধারণ নিবন্ধনধারীরা তাদের কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য আর বিন্দুমাত্র ধৈর্য ধরতে রাজি না। কারণ, অপেক্ষা করতে করতে তাদের জীবনের অনেক মূল্যবান সময় নষ্ট হয়ে গেছে।’

শান্ত আহমেদ দাবি করেন, ‘কোনো রিটকারী নয় বরং মেধাতালিকা ও শতভাগ স্বচ্ছতার ভিত্তিতে এনটিআরসিএ নিয়োগের ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে।’

সাধারণ নিবন্ধনধারীদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘অযৌক্তিক রিটে সাধারণ নিবন্ধনধারীরা যাতে অন্যকে টাকা-পয়সা দিয়ে নিঃস্ব না হয়, সেই বিষয়ে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। অযৌক্তিক রিট বা আইনি জটিলতায় এনটিআরসিএ এর ভূমিকা অবশ্যই শক্ত অবস্থানে থাকা উচিত।’

রোববার (২৭ জুন) বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) ১-১২তম নিবন্ধনধারীদের মধ্যে রিটকারীদের নিয়োগের সুপারিশের বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদনের শুনানি করে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আর আজ আদালত আদেশ দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুক আমরা